সরকারি কর্মচারিদের জটিল রোগের চিকিৎসা অনুদান

You are currently viewing সরকারি কর্মচারিদের জটিল রোগের চিকিৎসা অনুদান

সরকারি কর্মচারিদের জটিল রোগের চিকিৎসা অনুদান প্রাপ্তি পদ্ধতি।বর্তমানে বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত রুগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে আশঙ্কাজনক হারে। চিকিৎসা করাতে গিয়ে সারাজীবনের সঞ্চয় নিমিষেই শেষ হয়ে যাচ্ছে। পরিবার হিমশিম খাচ্ছে এই ব্যয়বহুল চিকিৎসা ব্যয় মেটাতে।  তবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী হিসেবে জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে যারা দেশে-বিদেশে চিকিৎসা করাচ্ছেন তারা বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড থেকে কিছু অনুদান পান। সরকারি কর্মচারিদের জটিল রোগের চিকিৎসা অনুদান পাওয়ার প্রক্রিয়াটি এখানে উল্লেখ করা হল-

📝সেবাপ্রার্থীর ক্যাটাগরি :

কর্মরত সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারীর নিজে কোন জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা করালে জটিল ও ব্যয়বহুল রোগের দেশে বিদেশে  চিকিৎসা সাহায্য তহবিল হতে চাকরি জীবনে এক বা একাধিকবারে সর্বোচ্চ ২ (দুই) লাখ টাকা আর্থিক সাহায্য প্রদান করা হয়। [১ জুলাই, ২০১৯ এর পূর্বের চিকিৎসার জন্য সবোর্চ্চ  ১ লাখ টাকা এবং ১ জুলাই, ২০১৯ এর পরবর্তী সময়ে চিকিৎসার জন্য সবোর্চ্চ  ২ লাখ টাকা প্রদান করা হয়]

📝জটিল রোগের ধরণঃ 

হার্ট ষ্ট্রোক, ব্রেইন ষ্ট্রোক, বাইপাস সার্জারী, হার্টে রিং পড়ানো, ক্যান্সার, কিডনী ডায়ালাইসিস, কিডনী ট্রান্সফার, মারাত্মক দূর্ঘটনাজনিত কারণে অঙ্গহানি।

📝আবেদন ফরম ডাউনলোড লিংকঃ

http://www.bkkb.gov.bd/site/forms/2a8b80be-1b4a-47d5-9fe6-8854cab71386/-

📝সেবা প্রাপ্তির সংক্ষিপ্ত বিবরণঃ

প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আবেদনপত্র ডাকযোগে পাঠালেই চলবে। 

১. আবেদনসমূহ প্রাপ্তির পর সফটওয়্যারে এন্ট্রি করে তালিকা তৈরি এবং SMS এর মাধ্যমে আবেদনের ডিজিটাল ডায়েরী নম্বর, তারিখ ও আবেদনে কোন ত্রুটি থাকলে তা জানিয়ে দেয়া হয়

২. বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দ্বারা রোগের সঠিকতা নিরুপন, কাগজপত্রসমূহ পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং অর্থ সুপারিশের জন্য আবেদনপত্রসহ তালিকার হার্ড কপি ও সফট কপি স্থায়ী মেডিকেল বোর্ডে প্রেরণ করা হয়

৩. স্থায়ী মেডিকেল বোর্ড থেকে তালিকা ফেরত আসার পর সুপারিশকৃত অর্থ সফটওয়্যারে এন্ট্রি করে তালিকা প্রিন্ট করা, যাচাই বাছাই কমিটি সভায় অর্থ মঞ্জুরির সুপারিশ করা হয়

৪. পরবর্তীতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মহোদয়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় চূড়ান্ত অর্থ মঞ্জুরি প্রদান করা হয় এবং SMS এর মাধ্যমে মঞ্জুরিকৃত অর্থের পরিমাণ জানিয়ে দেয়া হয়

৫. সেবাপ্রার্থীর নামে মঞ্জুরিকৃত অর্থ সেবাপ্রার্থীর ব্যাংক হিসাবে EFT এর মাধ্যমে পৌঁছে দেয়া হয়।

৬. এ সংক্রান্ত সকল তথ্য বোর্ডের ওয়েবসাইট (www.bkkb.gov.bd) থেকে জানা যায়।

📝সেবা প্রাপ্তির শর্তাবলিঃ 

১. নির্ধারিত আবেদন ফরম নং ০৮ পূরণ করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি প্রতিস্বাক্ষর করে সংযুক্ত করে মহাপরিচালক, বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড, প্রধান কার্যালয়, ১ম ১২তলা সরকারি অফিস ভবন, সেগুনবাগিচা, ঢাকা বরাবরে একটি ফরওয়ার্ডিং চিঠির মাধ্যমে প্রেরণ করতে হয়;

২.   কর্মরত সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারীর নিজের চিকিৎসার জন্য চাকরি জীবনে এক বা একাধিকবারে সর্বোচ্চ ২ (দুই) লাখ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়;

৩.   ফরমের নির্ধারিত স্থানে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার কর্তৃক প্রত্যয়ন এবং মৃত কর্মকর্তা কর্মচারীর অফিস কর্তৃপক্ষের স্বাক্ষরসহ নামযুক্ত সিল প্রদান।

📝প্রয়োজনীয় কাগজপত্রঃ 

১। হাসপাতালে ভর্তি হয়ে থাকলে মূল ছাড়পত্র (অফিস কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রতিস্বাক্ষরিত)।

২। চিকিৎসা সংক্রান্ত বিল, ভাউচারের মূলকপি(অফিস কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রতিস্বাক্ষরিত)।

৩। চিকিৎসা সংক্রান্ত ব্যবস্থাপত্র ও রিপোর্ট (অফিস কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রতিস্বাক্ষরিত)।

৪। চিকিৎসা সংক্রান্ত খরচের হিসাববিবরণী(কর্মচারীর স্বাক্ষর সহ)

৫। ২০১৫ এর Pay Fixation ফর্মের সত্যায়িত ফটোকপি। 

৬। অফিস প্রধানের অগ্রায়ন পত্র। 

📝সেবা প্রাপ্তির সময়ঃ

৪৫ দিন(তবে ক্ষেত্রবিশেষে ৬০ থেকে ৯০ দিন লাগতে পারে)। 

📝খরচঃ

এর জন্য কোন ফি দিতে হবেনা এবং কোন অফিসে দৌড়াদৌড়ি করতে হবেনা। আপনার কাগজপত্র সঠিক থাকলে অনুমোদিত অর্থ আপনার ব্যাংক একাউন্টে সরাসরি EFT এর মাধ্যমে চলে আসবে। কোন দালাল চক্রের পাল্লায় পরবেন না। 

📝যে কারনে আবেদন বাতিল হতে পারেঃ 

⛔আবেদনকারীর মোবাইল নম্বর না থাকলে;

⛔আবেদনকারীর কর্তৃপক্ষের টেলিফোন বা মোবাইল নম্বর কোনটাই না থাকলে;

⛔আবেদনকারী পুরাতন (বাতিল) ফরমে আবেদন করলে। নতুন ফরম বোর্ডের ওয়েব সাইটে( http://www.bkkb.gov.bd/) পাওয়া যাচ্ছে।

⛔আবেদনকারী ফরমের ১২ নং কলামে ইতিপূর্বে কোন টাকা পেয়েছেন কিনা তা সঠিকভাবে উল্লেখ না করলে;

⛔আবেদন ফরমের সাথে যে সকল কাগজপত্র সংযুক্ত করার কথা সেগুলোর কোন একটি সংযুক্ত না করলে;

⛔আবেদন ফরমে আবেদনকারীর বা কর্তৃপক্ষের স্বাক্ষর/সিল না থাকলে।

📲অফিসিয়াল হেল্পলাইনঃ

ফোনঃ ৯৩৫৮০৪৮, মোবাইলঃ ০১৮৫৬৬৮৭৭৭৩

Leave a Reply