রূপান্তর(Metamorphosis)

You are currently viewing রূপান্তর(Metamorphosis)

কোন প্রাণীর জীবনচক্রে কিছু ধারাবাহিক পরিবর্তনের মাধ্যমে যখন লার্ভা দশা থেকে পূর্ণাঙ্গ প্রাণীতে পরিণত হয় তখন তাকে রূপান্তর(Metamorphosis) বলে। যেমন- ঘাসফড়িং, ব্যাঙ, তেলাপোকা, প্রজাপতি ইত্যাদি।
রূপান্তর দুই প্রকার।
১। সম্পূর্ণ রূপান্তর (Complete metamorphosis) – এর চারটি ধাপ থাকে।
ডিম ➡️ লার্ভা ➡️ পিউপা ➡️ইমাগো(পূর্ণাঙ্গ প্রাণী)।
ডিম ফুটে যে শিশু প্রাণী বের হয় তাকে লার্ভা বলে।
এদের শিশু প্রাণী এবং পূর্ণাঙ্গ প্রাণী দেখতে সম্পূর্ণ ভিন্ন রকম হয়। 

২। অসম্পূর্ণ রূপান্তর (Incomplete metamorphosis) – এর তিনটি ধাপ থাকে।
ডিম ➡️ নিম্ফ ➡️ইমাগো(পূর্ণাঙ্গ প্রাণী)।
ডিম ফুটে যে শিশু প্রাণী বের হয় তাকে নিম্ফ বলে।
এদের শিশু প্রাণী এবং পূর্ণাঙ্গ প্রাণী দেখতে প্রায় একই রকম হয়। 

মোল্টিং(Moulting) বা খোলস মোচন বা একডাইসিস(Ecdysis): ঘাসফড়িং এর রূপান্তরের সময় বেশ কয়েকবার খোলস বদলায় একে খোলস মোচন বা মোল্টিং বলে। একডাইসন হরমোনের প্রভাবে এটি হয়ে থাকে বিধায় একে একডাইসিস বলে।
পরপর দুটি খোলস মোচনের মধ্যবর্তী দশাকে ইন্সটার(Instar) বলে।

রূপান্তরে হরমোনের ভূমিকাঃ অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি নিঃসৃত জৈব রাসায়নিক পদার্থ যা প্রাণীর দৈহিক ও শারীরবৃত্তীয় কাজকে নিয়ন্ত্রণ করে তাকে হরমোন বলে। ঘাসফড়িংয়ের দেহে ৪ ধরনের অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি আছে যা রূপান্তরে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে।
১। Intercerebral gland cells:  Prothoracicotropic hormone বা Brain hormone(মস্তিষ্ক হরমোন) ক্ষরণ করে যা Prothoracic gland কে হরমোন ক্ষরণে উদ্দীপ্ত করে।
২। Prothoracic gland: একডাইসন হরমোন ক্ষরণ করে মোল্টিং বা খোলস মোচনকে নিয়ন্ত্রণ করে।
৩। Corpora allata: জুভেনাইল হরমোন ক্ষরণ করে নিম্ফ দশাকে দীর্ঘায়িত করে। দেহের অস্বাভাবিক বৃদ্ধিকে রহিত করে।
৪। Corpora cardiaca: Growth hormone ক্ষরণ করে যা প্রাণীর বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

বিস্তারিত জানতে ভিডিও লেকচারটি ক্লিক করুন

https://www.youtube.com/embed/n9ZzKAHaiNU

Leave a Reply